রঙ বাক্স

ই-কমার্স এবং বাংলাদেশ | কাজটি শুরু করার আগে আমি অনেক ভয়ে ছিলাম

উম্মে মারিয়া  জন্ম টাংগাইলে কিন্তু বর্তমানে ঢাকার মিরপুরে থাকেন।তিন ভাই বোনের মধ্যে ছোট মারিয়া। মারিয়া মিরপুর বাংলা উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে এস এস সি ও শহীদ বীর উত্তম লেঃ আনোয়ার গার্লস কলেজ থেকে এইচএসসি শেষ করে এখন ইডেন মহিলা কলেজে সমাজ কর্ম ডিপার্টমেন্টে অনার্স চতুর্থ বর্ষে অধ্যয়নরত ।

মা বাবার সপ্ন ছিল মেয়ে পড়ালেখা করে সরকারি চাকরি করবে যদিও ছোটবেলায় মারিয়া চেয়েছিল ডাক্তার হবে কিন্তু বড়ো হওয়ার সাথে সাথে ইচ্ছাও পরিবর্তন হয়েছে। বর্তমানে মারিয়া পড়াশোনার পাশাপাশি ছোট একটি অনলাইন পেজ চালাচ্ছেন।

মারিয়া জানানঃ “প্রায় এক বছর হয়ে গিয়েছে আমি কাজটি শুরু করেছি। কাজটি শুরু করার আগে আমি অনেক ভয়ে ছিলাম। পড়াশোনার পাশাপাশি কাজ করতে পারব কিনা, কাঁচামাল কোথা থেকে আনব এইসব বিষয় নিয়ে একটা ভয়ে ছিলাম। তারপর একদিন এক আপুর সাথে কথা বলে,তার উৎসাহে কাজটি শুরু করে দিলাম।আমার বাবা মা যখন আমার অনলাইন পেজ এবং কাজের কথা যানতে পারলো তারা খুব অবাক হয়েছিল আর এটাও বলেছিল এসব বাদ দিয়ে পড়াশোনায় মনোযোগ দাও। তাদের ধারণা ছিল আমি এখন কাজ শুরু করলে ভালো ফলাফল করতে পারবো না। ”

নিজের বিজনেস নিয়ে মারিয়া জানানঃ আমার পেইজের নাম sami’s fashion paradise. যেহেতু আমি গয়না, শাড়ী এসব নিয়ে কাজ করি তাই মাথায় fashion নামটা ঘুরছিল সেই থেকেই পেইজের নাম দিয়েছি sami’s fashion paradise.আমি হাতের তৈরী গয়না যেমন – মেটালের গয়না,কাঠের গয়না এবং আর্টিফিশিয়াল ফুলের গয়না নিয়ে কাজ করছি। পাশাপাশি জামদানী শাড়ি, ব্লক ও হেন্ড পেইন্টের শাড়ী ও আছে। স্কুল জীবন থেকেই টুকটাক কাজ করতাম যেমন- বিভিন্ন শোপিছ বানানো,বার্থডে কার্ড বানানো। আর এগুলো সবাই খুব পছন্দ ও করতো। তখন থেকেই ইচ্ছে ছিলো নিজে কিছু করার আর সেই ইচ্ছে থেকেই আজ আমার উদ্যোক্তা হওয়া। আমার পেইজেটি এখন খুবি ছোট কিন্তু আস্তে আস্তে পেইজটি বড়ো হবে ইনশাআল্লাহ এবং ভবিষ্যতে শোরুম দেওয়ার ইচ্ছে আছে।