সেলুলয়েডের গল্প

পতিতা নয়, ভারতীয় চলচিত্রের প্রথম নায়িকা ছিলেন একজন মুসলিম রাজকুমারী

ভারতীয় চলচিত্রের ইতিহাস অনেক পুরাতন, অনেক মধুর স্মৃতি যেমন এখানে আছে তেমন আছে অনেক কালিমা মাখা গল্প-গাথা। বেশির ভাগ সময়েই এই কালিমার শির্ষে থাকেন নায়িকারা তাদের চরিত্র-জন্ম-বয়স-সম্পর্ক এইসব নিয়ে প্রচুর কথা প্রচলিত থাকে। তেমনই একটি বহুল প্রচলিত কথা ছিল যে ভারতীয় চলচিত্রের প্রথম যে নায়িকা ছিলেন তিনি একজন বাইজির সন্তান এবং যার বাবার পরিচয় কখনো পাওয়া যায়নি। তথ্যটি সম্পুর্ন ভুল , আসুন জেনে নেয়া যাক ভারতীয় চলচিত্রের প্রথম নায়িকা সম্পর্কেঃ

জোবাইদা বেগম ধানরাজগীর (১৯১১-১৯৮৮)ছিলেন প্রথম ভারতীয় চলচিত্র অভিনেত্রী। “কোহিনুর”মুভির মাধ্যমে প্রথম অভিষেক ঘটে তার। তিনি ছিলেন সুরাট শহরের একজন মুসলিম রাজকুমারী, তার বাবা ছিলেন নবাব সিধি ইবরাহীম মুহাম্মদ ইয়াকুব খান(৩য়)এবং মা ছিলেন ফাতেমা বেগম। তার আরো দুইটি বোন ছিল সুলতানা এবং শাহজাদী, তারাও অভিনেত্রী ছিলেন। তিনি এমন একটি সময় ফ্লিম ইন্ডাস্ট্রিতে আসেন যখন ফিল্মে কাজ করা মেয়েদের জন্য ছিল কল্পনাতীত এবং রাজকীয় পরিবারের জন্য একদম নিষিদ্ধ তার উপরে তিনি ছিলেন মুসলমান নারী। জোবাইদা মাত্র ১২ বছর বয়সে ফ্লিমের জন্য কাজ শুরু করেন। আলম আরা (১৯৩১) মুভিতে কাজ করে তিনি খ্যাতি অর্জন করেন। চলচিত্রে তার এবং তার বোনদের একাধিক কাজ রয়েছে। “আলম আরা” চলচিত্রটিই প্রথম ভাষা দান কারি চলচিত্র তাই জোবাইদাকেই প্রথম ভারতীয় চলচিত্রের নায়িকা বলা হয়ে থাকে। এর আগের চলচিত্রগুলো ছিল নির্বাক চলচিত্র অথবা ইউরোপীয় মেম্বারা কেও হয়ত জড়িত ছিলেন। কিন্তু আলম-আরা’ই একমাত্র চলচিত্র যেখানে সম্পুর্ন ভারতীয় লোকেরা মিলে তৈরি করেন।

বেগম জোবাইদার উল্লেখ্যযোগ্য কাজের মধ্যে ছিল মাইথোলজির চরিত্র সমূহ যেমনঃ সুভদ্রা, উত্তরা, দ্রুপদি ও অন্যান্য। “নিরোদ্দেশ অবলা”  ছিল তার শেষ চলচিত্র।

বেগম জোবাইদা হায়দারাবাদের মহারাজ নরসিংহ ধানরাজগীর জ্ঞান বাহাদুরের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। তিনি বিখ্যাত অভিনেতা সঞ্জয় দত্তের প্রথমা স্ত্রী রিয়া পিল্লাই এর মা ছিলেন, এছাড়াও তার আরো দুইজন পুত্র সন্তান ছিল। তিনি বিবাহের পর হিন্দু ধর্মের  অনুসারী ছিলেন। তিনি ১৯৮৮ সালে বার্ধক্য জনিত কারণে মৃত্যু বরন করেন।

তথ্যঃ First Talkie Actress – Rani Zubieda