অনুরণন

মাশরাফি ছাড়া আমাদের ক্রিকেট টিম চলবে | সুস্মিতা’র রোজনামচা

সুস্মিতা জাফরঃ কিছুদিন আগে একটা স্ট্যাটাস এ বলেছিলাম, আমরা খুব সহজেই একজনের অবদান ভুলে যাই। আগে সে কীরকম ব্যবহার করেছে আমার সাথে, আমার জন্য কী কী কাজ করে দিয়েছে, কী কী উপকার সে করেছে– সব, স-অ-ব কিছু আমরা ভুলে যাই সময়ের সাথে সাথে। কেউ অতীতে আমাদের সাথে খারাপ কিছু করল, তা আমাদের স্মৃতি বেশ ভালমতই ধরে রাখতে পারে, কিন্তু কেউ পূর্বে যত ভাল কিছুই করুক না কেন আমাদের জন্য, তা আমরা মনে রাখিনা,,, বর্তমান অবস্থানে সময়ের সাথে সাথে সেই অতীত ভুলে যাই। অতীতে সে ভাল কিছু করেছিল,তাতে কী,,,বর্তমানে সে কিছু করতে পারছে না,,, সে অথর্ব,,, তারে ছুড়ে ফেলে দাও,এমনটাই আমাদের মানসিকতা!

আমি খুবই বাংলাদেশ ক্রিকেট টিম পাগল একজন মানুষ। কেবল একটা দলকেই সাপোর্ট করি, একটা দলের খেলাই দেখি। পরীক্ষার পড়া পড়তে পড়তেও খেলা দেখি, আবার হারমোনিয়াম বাজিয়ে সার্গাম প্র‍্যাক্টিস করতে করতেও খেলা দেখি। একদিন অনেক ঘুরে অনেক খুঁজে, ঢাকার অনেকটা জ্যাম পাড়ি দিয়ে,গত বছর একটা ইয়া মোটাতাজা বই কিনেছিলাম। বইটার নাম ‘মাশরাফি’। কেন কিনেছিলাম, জানেন? নাহ, মাশরাফির খেলা ভাল লাগে বলে কিনি নাই, কিনেছিলাম, সে ডাক্তারদের নিয়ে খুব সুন্দর একটি লাইন লিখেছিল এই বইতে!! সেই লাইন আবার আমি প্রথম দেখেছিলাম, ফেসবুকে! তার সেই কথা কয়টি আমার এত ভাল লেগেছিল যে, মাশরাফির জন্য আমার মনে যে তীব্র শ্রদ্ধাবোধ জাগল, তা খুব কম মানুষের জন্যই হয়েছে এর আগে! আমি উথাল পাথাল হয়ে এরে তারে জিজ্ঞেস করছিলাম কেবল, “কথাগুলো সত্যিই মাশরাফি বলেছে?? কোথায় বলেছে? কোন বই এ?? সেই বই আমার চা-ই চাই!!”

অথচ খেলোয়াড় নয় বরং এমপি মাশরাফি সদর হাস্পাতাল পরিদর্শন কালে ডাক্তার এর সাথে তার আচরণের কারণে হুট করেই যেন একদিন নায়ক থেকে ভিলেনে পরিগনিত হয়ে গেলেন …. গোটা ডাক্তার সমাজের কাছেই। আমার ফেসবুক ফ্রেন্ড লিস্ট ডাক্তার দিয়ে ভর্তি বলেই কিনা কে জানে,,,,ইদানিংকালে বাংলাদেশ একটু খারাপ খেললেই যত দোষ নন্দ ঘোষের মত সব অপরাধ হয়ে যায় বুড়িয়ে যাওয়া (!) এই মাশরাফির! মাশরাফি বল করতে পারছে না, ব্যাট করতে পারছে না,,,, আরে,ও তো ক্যাপ্টেন্সি ই পারছে না রে,,,, এমনিতেই গোটা তিনেক ম্যাচ জিতে গেল আর কি! আচ্ছা বলুন তো, কয়েক মাস আগেই কি ভাবতে পেরেছিলেন, মাশরাফি ছাড়া আমাদের ক্রিকেট টিম চলবে? মাশরাফিকে ছাড়া আমাদের চলবে?? বুকে হাত দিয়ে বলেন তো, একবারো কি হৃদয়টা কেঁপে ওঠেনি,যখন ভেবেছেন, আর কয়দিন পর মাশরাফি চলে গেলে এই এত্ত বড় ক্রিকেট দলটার মাথার উপর অত্যন্ত ধৈর্য সহকারে, দুটি পা এর শতচ্ছিন্ন হাড় আর রগগুলো কোনমতে জোড়া লাগিয়ে দায়িত্ব নিয়ে কে এখন ছায়া হয়ে দাঁড়াবে??? দলে আর কার এত বড় যোগ্যতা আছে,বলেন ??

মাশরাফি ক্যাপ্টেন্সি করতে পারছে না। আগে কী পেরেছিল?? এতদিন কে লীড দিয়েছিল বাংলাদেশ দলের?? হ্যা, আপনি বলতেই পারেন যা দিয়েছিল, তা অতীত,,,, দলের প্রয়োজনেই এখন তার সরে যাওয়া অবশ্য কর্তব্য। তাই বলে, গত ২০ বছর ধরে যে মাশরাফি, জাতীয় দলে ক্ষত বিক্ষত দুটো পা নিয়ে আপনার,আমার,আমাদের দেশের জন্য খেলে গেল,,,, তার কি কোনই মূল্য নেই আর আমাদের কাছে?? সমালোচনা করলে গঠনমূলক সমালোচনা ই করা উচিৎ, দলে এখন তার প্রয়োজন নেই বলে যাচ্ছেতাই ভাবে এমন একজন কে আমরা হেয় ভাবে টাইমলাইনে উপহাস করতে পারি না, যে তার গোটা তারুণ্য টাই ঢেলে সাজিয়েছে আপনার, আমার একটুখানি আনন্দর জন্য!

এমপি মাশরাফি এমপির কাজ করেছে,,,, খেলোয়াড় মাশরাফি আর এমপি মাশরাফি কে বাস্তব জীবনে এক করে ফেলবেন না যেন! খেলোয়াড় মাশরাফি আমাদের অনেক আবেগের একজন,আমাদের অনেক আপনজন। তাকে সেই অবস্থানেই থাকতে দিন। তার সে অবস্থানটারই যথাযথ সম্মান আমাদের প্রদর্শন করা উচিৎ। তার অবদান কোনভাবেই অগ্রাহ্য করার মত তুচ্ছ বিষয় নয়। এমপি মাশরাফি কে আমরা চিনি মাত্র কয়েক মাস,,,,আর খেলোয়াড় মাশরাফি কে চিনি সেই কৈশোর বয়স থেকে!

জ্বি, যদি এটা পরামর্শ ভাবেন, তবে এটা পরামর্শ,,, যদি আদেশ ভাবেন, তবে এটা আদেশ,,,আর যদি মনে করেন এ আমার অন্ধ আবেগ (কিন্তু যৌক্তিক) তবে তা-ই,,,,, এমপি মাশরাফি নয়, ২০ বছরের পুরনো,আপনার-আমার অতি প্রিয় খেলোয়াড় মাশরাফিকে স্মরণ করুন, তার অবদানের জন্য শ্রদ্ধা প্রদর্শন করুন।