হুতুমপেঁচা বলছি

সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের জন্য লাইব্রেরী

২৬শে মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবস উৎযাপন করতে হুতুমপেঁচা গিয়েছিল পোস্টাল কোয়ার্টার আরবান্ স্লাম আনন্দ স্কুল, তেজগাঁও-তে। সকাল ১০ টায় তারা উপস্থিত হয় লাল-সবুজ জামা পরে এক একটি বাংলাদেশ হয়ে থাকা বাচ্চাদের কাছে অনেকগুলো বই নিয়ে।

বরাবরের মত #আমরা_আপনার_আত্মবিকাশের_সারথি -এই মূলমন্ত্রে বিশ্বাসী হুতুমপেঁচার স্বেচ্ছাসেবীগণ বাচ্চাদের জন্য নিয়ে যান ৩১ টি শিশু ও কিশোরদের গল্পের বই, বিজ্ঞান ও দেশ বিদেশের জ্ঞানার্জনের কিছু নলেজ হাব ও ইন্সাইক্লোপিডিয়া।

বাচ্চাদের সাথে জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশনের পর হুতুমপেঁচার ফাউন্ডার এবং সভাপতি আনিকা সাবা বাচ্চাদের হুতুমপেঁচা বাচ্চাদের জন্য যেসকল কাজ করে থাকে সে সম্পর্কে তাদের ধারনা দেন। এরপরে হুতুমপেঁচার এডমিনিস্ট্রেটিভ হেড #জোবাইদা_ফাতেমা বাচ্চাদের জন্য পড়ার বইয়ের বাহিরে গল্পের বই কিভাবে আত্ম মনন বিকাশে সাহায্য করে এবং নলেজ হাব দিয়ে কিভাবে দেশ বিদেশ সম্পর্কে ধারনা পাওয়া যায় সে সম্পর্কে বলেন।

অতঃপর স্কুলের প্রধান শিক্ষক #মোঃ_দেলোয়ার_হোসেন-এর হাতে বইগুলো তুলে দেয়া হয় হুতুমপেঁচার পক্ষ থেকে, বাচ্চারা স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষ্যে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পালন করেন, এরপরে #দাদাভাই (অতনু অন্তু) এবং #মৌরী_আপু বাচ্চাদেরকে গল্পের বইয়ের কিছু অংশ পাঠ করে শোনান।

সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান শেষে বাচ্চাদের সাথে কর্নধার আনিকা সাবা হুতুমপেঁচার অন্যতম কার্য্যক্রম #শিশুদের_যৌননির্যাতন_সম্পর্কে_অবহিত_এবং_করনীয় সম্পর্কে অবহিত করেন এবং #মাদক থেকে বিরত থাকার জন্য পরামর্শ ও কাউন্সিলিং করেন। এডমিনিস্ট্রেটিভ হেড জোবাইদা ফাতেমা বাচ্চাদের উৎসাহিত করেন তাদের নিজেদের কথা তারা কিভাবে বড়দের সাথে শেয়ার করবে আর তাদের যে কোন সাহায্যে হুতুমপেঁচা তাদের কাছে আসবে এই প্রতিশ্রুতি করেন, বাচ্চারা হুতুমপেঁচাকে তাদের মনের কথা চিঠি লিখে জানাবে বলে জানায়।

পরবর্তিতে বাচ্চারা দাদাভাইয়ের সাথে দেশের জন্য কাজ করার শপথ পাঠের মাধ্যমে অনুষ্ঠানটি শেষ করেন।

ছবিকারিগরঃ #শিহাবুল_আরেফিন

©হুতুমপেঁচা- “আমরা আপনার আত্মবিকাশের সারথি”