রঙ বাক্স

ই-শপ | মেঘদূত

হুতুমপেঁচা সবার আত্এমবিকাশের সারথি হিসাবেই কাজ করে আর এই কাজের অংশ হিসাবে রয়েছে ই-কমার্সে বা অনলাইনে শপ পরিচিতি আর তারই আয়োজনে রয়েছে এবারের  ই-শপ “মেঘদূত” , আসুন মেঘদূত সম্পর্কে জেনে নেই প্রতিষ্ঠাতা রিফাত লায়লা আপুর কাছ থেকে-
(হুতুমপেঁচা-কে দেয়া আপুর কথাগুলো সরাসরি এখানে তুলে ধরা হল)

“প্রাতিষ্ঠানিক লেখাপড়া ব্যবস্থাপনায় স্নাতকোত্তর। যদিও সেটা কাজে লাগাতে পারিনি কোথাওই। আসল শিক্ষাঅর্জন এখনো করে চলছি মানুষের কাছ থেকে, মানুষকে দেখে দেখেই। বর্তমানে সবচেয়ে বেশি শিখি নিজ সন্তানদের কাছ থেকে। ওদের আচরণে উপলব্ধি করার চেষ্টা করি নিজের জীবনবোধের গভীরতা। জন্ম, শৈশব, কৈশোর আর ক্রমাগত পরিণত হয়ে ওঠা এই ঢাকাতেই। পিতৃসূত্রে আদিঠিকানা বাংলাদেশের কোন একটি গ্রাম হলেও আমি খুবই আত্মবিশ্বাসের সাথেই বলি, আমার গ্রামের বাড়ি ঢাকা।

বাচ্চাদের দেখাশোনার জন্য চাকরী ছেড়েছি ৫ বছর হলো। এখন প্রায়ই ভাবি আবার নতুন করে শুরু করবো। কিন্তু কিছুতেই একটা ৯-৫ টা অফিস টাইমে নিজেকে মানাতে পারি না। তারচেয়ে বাসায় বাচ্চাদের সাথে কাটানো সময়ের দামটাই অমূল্য মনে হয়। আর তাই চাকরির প্ল্যান বাদ দিয়ে টাইম ফ্রেন্ডলি হবে চিন্তা করে, কিছুটা শখ থেকেই, বন্ধুর উৎসাহ আর সহযোগিতায় শুরু করলাম অনলাইনের এই পেইজ। শুরুর পর এই পেইজ বা উদ্যোগ খুব দ্রুতই টপ প্রায়োরিটি লিস্টে চলে আসলো। এখন এটাই একটা ভালোবাসা, একটা চ্যালেঞ্জ।

ফ্যাশন সেন্স বা এই সময়ের ট্রেন্ড সেন্স কম থাকায় হয়ত শুরু করারই সাহস পাচ্ছিলাম না। নিজের যোগ্যতা বলতে একটাই জানি, তা হলো মানুষের সাথে যোগাযোগ। মানুষের সাথে যোগাযোগ স্থাপন আর রক্ষণাবেক্ষণ এর এই যোগ্যতা আমাকে নানান সময়ই এগিয়ে নিয়ে গেছে।

এই পরিণত বয়সে এসে একটাই ভাবনা- নিজের মৌলিকত্ব নিয়ে সবাই বাঁচুক, ভালো থাকুক, ভালো রাখুক।

ব্যবসার রিস্ক ফ্যাক্টরকে মাথায় রেখে মেঘদূত তার সততাকে ধরে রাখতে চায়, এতে আপনাদের আন্তরিক ভালোবাসা ও শুভকামনা চাই।”