রঙ বাক্স

নখ রাঙানো | রঙ বাক্স

সাজটা হোক এবার একেবারে আঙুলের ডগা অবধি। ফুল-প্রজাপতির নকশায় রঙে রঙিন সাজে এবার সেজে ওঠার পালা নখের। ঠোঁট, চোখ ও চুলের সাজের পর আপনার সাজটা পূর্ণ করতে সাজাতে বসে যান আপনার নখগুলো। এর আগে জেনে নিন নখ রাঙানোর নতুন চল।

নখ রাঙাতে নেইল পলিশের জুড়ি নেই—এ কথা আমরা কে না জানি। নখের সাজের অন্যতম অনুষঙ্গ সেই নেইল পলিশের চলটা আছে এখনো। তবে বদলে গেছে এর রাঙানোর ধরন। গোলাপি, সোনালি রঙের কদরটা ছিল বহু আগে থেকেই। এর সঙ্গে যোগ হয়েছে টকটকে লাল কিংবা একেবারে মেঘকালো রং। ময়ূরের নীল কিংবা টলটলে সবুজ, আকাশনীল—সব রঙের রাজত্বই চলেছে একাধারে। তারপর স্বচ্ছ রঙের সঙ্গে সাদার ফ্রেঞ্চ ম্যানিকিউর। এর সঙ্গে কখনো বা কেউ কেউ যোগ করেছে জরির রঙিন ছোঁয়া।

তবে এ সময় সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয়তা পেয়েছে নকশা, কারুকাজ আর বর্ণিল পাথরের ঝিলিকে নখের সাজ। ফুল, লতা, প্রজাপতির পাখা। আলপনার সব নকশাই এখন শোভা পাবে আপনার নখে। আপনি চাইলে চলে আসতে পারেন আপনার কাছের কোনো পারলারে।

ঢাকার ধানমন্ডিতে অবস্থিত বোমন্ড সিসিলি বিউটির রূপসজ্জাশিল্পী উম্মে আয়েশা কবীর বলেন, শুধু ফুলেল নকশা নয়, নেইল পেইন্টার ডিভাইস দিয়ে ১০ হাজারেরও বেশি নকশা এঁকে দেওয়া সম্ভব আপনার নখে। আপনার পছন্দমতো যেকোনো ডিজাইন করা সম্ভব। প্রিয় তারকা অথবা প্রিয় মানুষের মুখখানাও ফুটিয়ে তুলতে পারেন নখে। বিশেষ দিনের বিশেষ নকশা ভালোবাসার হূদয়খানি অথবা নববর্ষের হাতি-ঘোড়া, স্বাধীনতার লাল-সবুজের দেশ—সবই সম্ভব। খেলার মৌসুমে প্রিয় দেশের পতাকার নকশা করাও কঠিন নয়। যাঁরা ট্যাটু করতে চান, তাঁরা ট্যাটুর ডিজাইনও করতে পারেন। অথবা পছন্দের কার্টুন চরিত্র।

এক হাতের নখ সাজাতে খরচ পড়বে ৫০০ টাকা। দুই হাত হলে ৮০০। চাইলে নিজের পছন্দের নকশাটি করতে পারেন ঘরে বসেও। সে ক্ষেত্রে আপনার পছন্দমতো নকশার ছাঁচ কিনে পছন্দের রং দিয়ে সাজাতে পারেন নখ। নখ সাজানোর নকশার ছাঁচ আর বিভিন্ন রঙিন নেইল পলিশ পাবেন নগরের কসমেটিকসের দোকানেই।
ঢাকার বসুন্ধরা সিটির কোনাড স্ট্যাম্পিং নেইল আর্টের বিক্রয় ও নখসজ্জাকর্মী সুমা জানান ঘরে বসে আপনার নখ সাজানোর সহজ উপায়।

প্রথমেই নখগুলোর সুন্দর একটি আকৃতি দিয়ে নিন। একটি ব্রাশ দিয়ে খুব ধীরে ধীরে সুন্দর করে নখগুলো পরিষ্কার করে নিন। নখগুলো শুকাতে কিছুক্ষণ সময় দিন।
এবার আপনার পছন্দের একটি রং নিয়ে এক পরত নেইল পলিশ লাগান। পুরোপুরি শুকাতে কিছুক্ষণ অপেক্ষা করুন। এবার আপনার নকশার ছাঁচে ভিন্ন একটি রঙের নেইল পলিশ ছড়িয়ে নিন ধীরে ধীরে। নরম রাবারের প্যাড দিয়ে ছাঁচে আস্তে করে চাপ দিন। এবার প্যাডের নকশা আপনার নখে হালকা করে চেপে ধরুন।
এর ওপর স্বচ্ছ নেইল পলিশ লাগান।

আপনি চাইলে ফুল কিংবা প্রজাপতির ডানায় রঙিন পাথরও লাগাতে পারেন। লাগিয়ে আরেক পরত স্বচ্ছ নেইল পলিশ দিন। ব্যস, হয়ে গেল নখের সাজ। শুকানোর আগ পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। সাধারণ দুই বা তিন রঙে করা হয় এসব নখ স্ট্যামিং। সে ক্ষেত্রে কিছু কিছু রঙের সঙ্গে কিছু নির্দিষ্ট রং বেছে নিতে পারেন। যেমন—গোলাপির ওপর পেস্ট বা লাল, সাদার ওপর কালো বা লাল অথবা নীল, বেগুনি। হলুদের সঙ্গে সাদা, নীলের সঙ্গে সাদা বা বেগুনি, সবুজ ও সাদা। তবে নেইল পলিশগুলো যেন ভালো ব্র্যান্ডের হয়, অন্যথায় নখের নকশার সাজটি মনমতো হবে না আপনার। অধিক মাত্রায় পানিতে কাজ কিংবা নখ দিয়ে খোঁটাখুঁটি না করলে অনেক দিন থাকে এ নকশা।
যাঁদের ঘরে বসে নখ সাজানোর অত বেশি সময় হয় না অথবা ঝটপট করে কোনো উৎসবে যোগ দিতে হয়, তাঁরা অবশ্য বিকল্প হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন নেইল আর্ট স্টিকার অথবা কৃত্রিম নকশার নখ। গ্লু দিয়ে সুন্দর করে আটকে নিতে পারেন সেসব কৃত্রিম নখ। স্টিকারের ব্যবহারও বেশ সহজ। পছন্দমতো ডিজাইনের এক সেট স্টিকার রেখে দিতে পারেন সময় বাঁচাতে। স্টিকার আপনার নখে এক সপ্তাহ পর্যন্ত থাকে।

বিভিন্ন কসমেটিকসের দোকানে পাবেন নখ সাজানোর সব উপকরণ। নখ স্ট্যাম্পিং করার জন্য নেইল পলিশ, স্ট্যাম্প স্টেপার প্লেট, ডিজাইন প্লেটের সেট পাবেন ৮৯৫ টাকায়। নকশার সংখ্যাভেদে পাঁচ থেকে আট হাজার টাকায়ও পেতে পারেন এটি। পাথরের বাক্স ১৭৫-৫৯৫, স্টিকার ২০০-২৭৫, কৃত্রিম নখ ৩২৫, নকশাসহ কৃত্রিম নখ ৫৯৫-১০০০ টাকায়।