মুক্তধারা

ভালবাসার রাশিচক্রে কোন মেয়ে কেমন?

মেষ (২১মার্চ-২০এপ্রিল)

মেষ রাশির মেয়েরা ক্ষমতাধর এবং নিয়ন্ত্রণকারী হয়ে থাকে। তারা তাদের পরিজনদের মধ্যে নিজেকে নেতৃত্ব প্রদানের ক্ষমতায় অধিষ্ঠ করে থাকে। তারা তাদের ক্ষমতার সবটুকু ভালবাসার জন্য দিয়ে থাকেন। তারা তাদের সম্পর্কের মধ্যেও নিজের চিন্তা ভাবনা অন্যর উপরে চাপিয়ে দেয় এবং অধিকার ধরে রাখে।

বৃষ (২১এপ্রিল-২১মে)

বৃষ রাশির মেয়েরা প্রচণ্ড ইচ্ছাশক্তি এর অধিকারিণী হয়ে থাকেন। তারা অত্যন্ত সুকৌশলি এবং সচেতন থাকেন তাদের মতামত প্রকাশে এবং ভালবাসার মানুষের প্রতি তাদের ভালবাসা প্রকাশে এবং তাদের রক্ষা করতে তারা অনেক বেশী কঠিন হয়ে পরে অন্যদের প্রতি। তারা নিজেদের অতিরিক্ত ক্ষমতার বাইরে গিয়ে মানুষকে ভালবাসাতে পারেন এবং তাদের মত করে কেও ভালবাসার জন্য সব করতে পারে না। তারা যখন কোন কিছুতে বেঁকে বসে তখন পুরো দুনিয়া তাদের বিপক্ষে গেলেও তারা তা শুনেন না।

মিথুন (২২মে-২১জুন)

মিথুন রাশির মেয়েরা অনেক কিছু করতে পারেন এবং তারা বিশাল জগত নিয়েও চিন্তা করে থাকেন। তারা এমন একটি রাশি যারা অসাধারণ কিছু করতে পারেন এবং তাদের চিন্তা ধারাও মুক্ত। মুক্তমনের অধিকারিণী এই রাশির জাতিকারা অনেক ধরনের বুদ্ধিদীপ্ত কাজ করতে সক্ষম হন যা অন্যদের পক্ষে অসম্ভব। তারা কারো উপরে কিছু চাপিয়ে দেন না কিন্তু তারা যথেষ্ট সহানুভূতিশীল হবার কারণে সবাই তাদের কথা শুনে।

কর্কট (২২জুন-২২জুলাই)

কর্কট রাশির মেয়েদের বোঝা একটু সমস্যার। তারা একদিকে যেমন অনেক প্রচণ্ড ভালবাসতে পারে অন্যদিকে ঠিক একইভাবে প্রচণ্ড ঘৃণাও করতে পারে। এই রাশির মেয়েরা যে কোন গোপন বিষয় সারাজীবন অন্যকে না জানায় গোপন রাখতে পারে, তাদের কাছে সততার ক্ষেত্রে কোন ছাড় নেই। তাদের মনের মধ্যে কি থাকে তা বোঝা আসলেই সোজা নয়।

সিংহ (২৩ জুলাই-২৩অগাস্ট)

সিংহ রাশির জাতিকারা অত্যন্ত চমৎকার এবং তারা নেতৃত্ব দানের ক্ষমতায় থাকে। তারা তাদের লক্ষ্যে না পৌঁছানোর আগ পর্যন্ত থামেন না। তারা সবসময় তাদের জন্য একটি নতুন স্ট্যান্ডার্ড মার্ক তৈরি করে থাকেন। তারা তাদের খারাপ সময়টাকেও উপভোগ্য করে তুলেন।

কন্যা (২৪অগাস্ট-২৩সেপ্টেম্বর)

কন্যা রাশির জাতিকারা সবসময় সঠিক সিধান্ত নিতে সক্ষম হন। হৃদয়ের দিক থেকে তারা রানী , ভালবাসা –সাহায্য সব কিছুতেই তারা অত্যন্ত আন্তরিক। তারা হেরে যেতে যেমন জানে ঠিক তেমন সব দিক দিয়ে বিজয়ী হতেও জানে। তাদের মন অত্যন্ত পরিষ্কার তারা শুধুমাত্র কষ্ট পায় ভালবাসার জন্য এবং প্রিয় মানুষকে হারানোর জন্য তাদের হৃদয়ে রক্তক্ষরণ হয়ে থাকে।

তুলা (২৪সেপ্টেম্বর-২৩অক্টোবর)

তুলারাশির জাতিকারা অত্যন্ত রুচিশীল এবং চমৎকার মনের অধিকারিণী। তাদের রসিকতা এবং বুদ্ধি দুইটাই অনেক ভাল হয়ে থাকে। তারা সুদর ভাবেই নিজের জীবন অতিবাহিত করে থাকেন কারণ তারা তাদের ইমোশঙ্কে অনেক ভালভাবে নিয়ন্ত্রন করতে পারেন। তাদের কনফিডেন্স লেভেল অনেক ভাল থাকে কারণ তারা জানে তারা জীবনে কি চায় এবং তাঁর জন্য তাদের কি করতে হবে।

বৃশ্চিক (২৪অক্টোবর-২২নভেম্বর)

বৃশ্চিক মেয়েরা টিপিক্যাল হয়ে থাকেন। তারা এলার্ট থাকে সবসময়য়। তারা মিথ্যা বলে না এবং সৎ থাকেন। কিন্তু তারা রেগে গেলে অত্যন্ত বাজে কথা দিয়ে অন্যর মনকে বিষিয়ে তুলেন। সবাই ঠিক এই একটা কারণে বৃশ্চিক মেয়েদেরকে সহ্য করতে পারে না।

ধনু (২৩নভেম্বর-২১ডিসেম্বর)

ধনু রাশির মেয়েরা ইমোশনাল এর ক্ষেত্রে অত্যন্ত ভয়ঙ্কর। তারা অনেক বেশী সেন্সেটিভ নিজেদের প্রতি এবং অন্যদের প্রতি। তারা আপানকে বুঝতে চেষ্টা করবে তাদের মত করে না আপনার মত করে আর এইজন্য তাদের সং অত্যন্ত উপভোগ্য। তারা অল্প কিছু মানুষের কাছেই তাদের দুর্বলতা প্রকাশ করে থাকেন। অনেকেই তাদের মানসিক অবস্থা বুঝতে পারে না দেখে তাদের ভুল বুঝে থাকেন।

মকর (২২ডিসেম্বর-২০জানুয়ারী)

মকর রাশির জাতিকারা স্বাধীনচেতা, আত্মসচেতন এবং প্রাকৃতিক ভাবেই দৃঢ়ব্যক্তিত্বসপন্ন হয়ে থাকে। তাদের নিজের প্রতি ধারনা অত্যন্ত ভাল কোন প্রকারের হীনমন্যতায় তারা থাকেন না। তারা খুব ভাল করে তাদের দুর্বলতা এবং তারা কি কি করতে পারে তা সম্পর্কে ধারনা রাখেন। তাদের সব থেকে ভাল এবং বড় গুন হচ্ছে তারা মানুষকে ভাল পথ দেখাতে পারেন এবং সবাইকে সঠিক দিকে পরিচালনা করেন। তারা খুব কম মানুষের কাছেই নিজের আত্মপ্রকাশ করে থাকেন। এবং তারা যা বলে তা মন থেকে বলে।

কুম্ভ (২১জানুয়ারি-১৮ফেব্রুয়ারি)

কুম্ভ রাশির জাতিকারা জমগত যোদ্ধা এবং স্বপ্নচারিণী। তারা কিছুটা কর্কশ এবং তাদের উচ্চকাংক্ষার জন্য অন্যের ক্ষতি করে ফেলেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তারা নিজের জয়টুকু ছিনিয়ে নেন।

মীন (১৯ফেব্রুয়ারী-২০মার্চ)

মীন রাশির মেয়েদের বলা হয় ভালবাসার ঝর্না। তারা সৎ এবং ভালবাসা ছাড়া আর কিছু বুঝে না। তারা অনেক বেশী সেন্সেটিভ থাকেন এবং ইমোশনের দিক দিয়ে তারা অনেক আত্মকেন্দ্রিক। তারা কষ্ট পেলেও এত ভাল করে লুকিয়ে রাখতে জানে যে কেও বুঝবেই না যে সে কষ্ট পাচ্ছে। তারা তাদের ভালবাসা দিয়ে সব কিছু অর্জন করতে পারে।