মুক্তধারা

আমি স্বাবলম্বী

আজকাল প্রায়শই অনেকের মুখে আমার একটা কথা শুনতে হয় যে, “তোমার মায়ের বয়স হচ্ছে.. অনেকদিন তো হলো, এবার আবার বিয়ের কথা ভাবো..তোমাকে কারো হাতে তুলে দিতে পারলে উনার শান্তি… “… এবং ক্রমশ
প্রথম কথা হচ্ছে,কিছু কিছু মানুষ অল্প বয়স থেকেই স্বাবলম্বী হয়ে পড়ে। এরা আর কারো দ্বায়িত্ব গ্রহনের আপেক্ষায় বসে থাকে না, এবং কখনও কেউ এদের দ্বায়িত্ব গ্রহন না করলেও এদের তেমন আক্ষেপ থাকে না। সমস্যা তখন হয় যখন এই স্বাবলম্বীতা একটা মেয়ে দেখায়। সমাজ তাদের স্বাভাবিক চোখে দেখে না। এরা বহুবিধ বিশেষণে ভূষিত হয়। নারীবাদী, দাম্ভিক, পুরুষালী, আনস্টেবল এমনকি কেউ কেউ তাদের চরিত্রহীনা বলতে দ্বিধা বোধ করে না।
জি না!!
না আমি নারীবাদী, না দাম্ভিক পুরুষালী।
আমি শুধুই স্বাবলম্বী। একজন আত্মবিশ্বাসী নারী যার বেঁচে থাকার জন্য কোনো “সো কলড অবলম্বনের” প্রয়োজন নেই।

তবে কি আমি পুরুষবিদ্বেষী!!! না একদমই না। আমিও আমার পাশে সাথী চাই। হ্যাঁ, আমি সাথী চাই, কোনো প্রটেক্টটার চাই না, বা গার্জেন চাই না।
একজন স্বাভাবিক আত্মবিশ্বাসী পুরুষ মানুষ চাই যে প্রয়োজনে আমার সাহায্য কামনা করতে কুন্ঠা বোধ করবে না।

আমাদের ধর্মের উদাহরণ দিয়েই বলি, হাওয়াকে সৃর্ষ্টি করা হয়েছিল আদমের সাথী হিসেবে। আদম শুধু কামাই করবে আর হাওয়া সাজগোজ করে রান্নাবান্না করবে, আমার মনে হয় না সৃর্ষ্টিকর্তা কোথাও তা বলেছেন। বরংচ আদম যদি কখনও দূর্বল হয়ে পরে হাওয়া তখন তার পাশে ঢালের মতো থাকবে। হয়ত সৃর্ষ্টিকর্তা এভাবেও ভেবে থাকতে পারেন!!

পরম করুনাময়ের লিলাখেলা তো আমাদের বোঝা সম্ভব নয়, তবে হ্যাঁ, আমাকে যেহেতু উনি স্বাবলম্বী হবার সুযোগ দিয়েছেন, সেহেতু আমি তা উপোভোগ করছি।
আপনাদের এই সুযোগ দিয়ে থাকলে আপনারাও উপভোগ করুন। আর কেউ যদি অবলম্বন খুঁজে সুখি থাকেন, তবে তাই সই!!!
কারন যেমন সবাই কর্মঠ হয় না, তেমনি সবাই স্বাবলম্বী ও হয় না।

লিখেছেনঃ আফরিন পারভেজ

(হুতুমপেঁচা শুধুমাত্র মেয়েদের ম্যাগাজিন,আমাদের কাছে লেখা পাঠাতে চাইলে আপনার লেখা আমাদের ফেইসবুক পেইজ হুতুমপেঁচা-তে ইনবক্স করুন। এছাড়াও লেখা সংক্রান্ত আপনার মূল্যবান মতামত এবং পরামর্শ আমাদের কমেন্ট করে জানান। হুতুমপেঁচা- আপনার আত্মবিকাশের সারথি।)