রঙ বাক্স

শঙ্খচূর্ন : প্রাকৃতিকভাবে রঙ ফর্সাকারী উপাদান

শঙ্খচূর্ন এমন একটি প্রাকৃতিক উপাদান যা প্রাচীন আমল থেকে ত্বকের যত্নে ব্যবহার হয়ে আসছে। মূলত নারীরাই সৌন্দর্য্য বৃদ্ধিতে ব্যবহার করে থাকেন। মোঘল আমলে এর নানাবিধ ব্যবহার এবং গুণাবলি সম্পর্কে লেখা পাওয়া যায়। বর্তমানে বিশ্বে Whitening Product সমূহের মূল উপাদান হচ্ছে Sea Shell বা শঙ্খচূর্ন। নানাভাবে সমাদৃত এই প্রাকৃতিক উপাদানটি খুব সহজলভ্য এবং দামেও অত্যন্ত কম। আসুন জেনে নেওয়া যাক কিভাবে ঘরে বসে এই একটিমাত্র উপাদান দিয়ে আপনি প্রাকৃতিকভাবে নিজের উজ্জ্বলতা বাড়াতে পারবেন।

শঙ্খচুর্নের ব্যবহার সমূহঃ

(১) ফেস ওয়াশ/ স্ক্রাবারঃ মুখ পানি দিয়ে ভিজিয়ে নিয়ে শঙ্খচূর্ন হাতে নিয়ে পুরো মুখে আলতো হাতে ঘষে নিন এতে করে আপনার মুখের মরা চামড়া সহ অন্যান্য তৈলাক্ত পদার্থ মুখ থেকে বের হয়ে যাবে।

(২) ফর্সাকারী ক্রিম হিসাবেঃ আপনি প্রয়োজনমত মাখন এবং শঙ্খচূর্ন একত্র করে ভাল করে মিশিয়ে রাতে ঘুমানোর আগে মুখে মেখে নিতে পারেন। যাদের মুখ তৈলাক্ত তারা এই ক্রিমটি ভাল করে ম্যাসাজ করে মুখে মেখে ৩০ মিনিট পর ভেজা রুমাল দিয়ে ভাল করে মুখ মুছে ফেলতে পারেন। মাখনের পরিবর্তে দুধ অথবা দুধের সর দিয়েও আপনি এই ক্রিমটি বানাতে পারেন।

(৩) পাওডার হিসাবেঃ প্রাচীন আমলে বিশেষ করে মোঘল শাসন আমলে মুখে পাওডার হিসাবে শঙ্খচূর্ন ব্যবহার করা হত। আপনি ঘরে বাইরে যে কোন সময় এইটি ব্যবহার করতে পারবেন। বিশেষ উপকার পেতে এবং মুখে অতিরিক্ত তেল হলে আপনি রাতে ঘুমানোর আগে শঙ্খচূর্ন মুখে পাওডারের মত মেখে নিতে পারেন এবং সকালে ভাল করে পানি দিয়ে পরিষ্কার করে নিতে পারেন।

(৪) কালো দাগ দূর করতেঃ শঙ্খচুর্নের আরেকটি বিশেষ গুণাবলি হচ্ছে এইটি শরীরের কালো দাগ দূর করতে বিশেষ ভাবে সমাদৃত। শরীরের যে কোন স্থানের বিশেষ করে আন্ডার আর্মস এর কালো দাগ দূর করতে অনেক ভাল কাজ করে।

(৫) সাবানের পরিবর্তেঃ সপ্তাহে একদিন সাবানের পরিবর্তে সারা শরীরে শঙ্খচূর্ন ব্যবহার করতে পারেন। পুরো শরীর ভাল করে পানি দিয়ে ভিজিয়ে নিয়ে শঙ্খচূর্ন  ভাল করে হাত দিয়ে ঘসে শরীর পরিষ্কার করুন। এতে করে শরীরের মরা চামড়া উঠে যাবে এবং ধীরে ধীরে রঙ ফর্সা হবে।

তথ্যঃ Secrets of Indian Skin Care