মুক্তধারা

কালো সুন্দরী

ফুলের বাগানে কালো সুন্দরী
ফুল কুড়োয়,
ফুলঝুড়িতে ফুল নিয়ে
ফুলের মালা গাথে।
আর মনের মানুষের কথা ভাবে,
মনে মনে তার সাথে প্রেমের কথা বলে,
আর মনের কল্পনায়,
অচিন ভাবনায়,
ভালোবাসার অপেক্ষা করে।
সযতনে মনকে যতন করে রাখে।
আসবে উনি বাধবো তখন
ভালোবাসার ঘর,
সেই ঘরেতে থাকবে তখন
সুখের ঝলমল।
রাতের আঁধার
দিনের আলো,
সব মিলিয়ে যাবে ভালো।
সুখের দিন গুণে সুন্দরী
অপেক্ষা যে আর ফুড়োয় না।
নিজেকে শুরু শেষ
সবসময়ে রাখে যত্নের আবেশ,
ভাবে আরো কত কথা,
ভালোবাসার শক্তি,
এটাই হবে তার,
মূল বিশ্বাসের ভক্তি।
অপেক্ষা যে আর ফুড়োয় না,
দিন যে আর যায় না।
নিজেকে ভালোবেসে
রাখে তারি জন্য যতন করে।
এপার ওপার সারা পৃথিবীর
দিকে চেয়ে বারবার,
ভাবে আসবে কখন
ভালোবাসার মানুষটি তার।
ফুল ফোটে, ফুল ঝড়ে,
মালা গাথে, মালা শুকোয়,
কত প্রেমের গল্প যায় আসে,
সুন্দরীর অপেক্ষার দিন যে যায় যায়।
একি তাকে কেউ ভালোবাসেনা,
তার দিকে কেউ ফিরেও চায় না,
কেউ বলেনা সঙ্গী বানাবো তোমায়
অপেক্ষার কী হলো,
সুন্দরীর কী হবে।
ফুল প্রেম ভালোবাসা,
এগুলো কি তবে সব মিথ্যে আশা।
দিন গুণে গুণে এই তার হতাশা।
সবাই বলছে সে নাকি কালো,
আর তাই তাকে কেউ সঙ্গী বানাবে না।
কালো রং কি কালো সুন্দরীর অপরাধ।
এখন সে কালো রং তো বদলাতে পারবে না।
কালো রং নিয়েই তো তাকে বাঁচতে হবে।
ভালোবাসা ছাড়াই তাকে বাঁচতে হবে।
প্রেম,ফুল,মালা এসব ছাড়াই তাকে বাঁচতে হবে।
নিজেকে একজন মানুষ ভেবে তাকে বাঁচতে হবে।
মানুষ যখন মানুষকে কালো ভেবে দূরে সরে থাকতে পারে।
তাহলেতো এই ভালো,
নিজেই নিজেকে মানুষ ভেবে বাঁচতে পারা।
যারা মানুষকে কালো ভেবে দূরে থাকে,
প্রেম স্বপ্নগুলো তাদের জন্য নয়।
বরং স্বপ্নগুলোকে লুকিয়ে রাখা,
সেই অপেক্ষামান মানুষটির জন্য।
যে তার কালো রং দেখবে না,
দেখবে তার সুন্দর মনকে।

লিখেছেনঃ জিলফিকা বেগম জুঁই

লেখিকার আরো অন্যন্য কবিতা পড়ুনঃ হুতুমপেঁচা  ম্যাগাজিন -এ ।