মুক্তধারা

কল্পনা তবু সত্য প্রেমের মৃত্যু

তোমার চোখে স্বপ্ন দেখছিলাম সেদিন। দেখতে দেখতে যখন খুব কাছে চলে এসেছিলাম তখনই স্বপ্নটা ভেঙ্গে চৌচির। বিগত ভোরগুলোর মতই আজও ভালবাসাটিকে পূর্ণতা দিলে না তুমি। তুমি তো যানই ঐটুকু সময় ছাড়া আমার আর সময় নেই তোমাকে নিয়ে ভাবার। বার বার চলে যাওয়াটাই যেন তোমার অভ্যাস।

আচ্ছা বাবা! আমি জানিতো একটা ভুল হয়ে গিয়েছিল আমার। মানুষ মাত্রই তো ভুল নাকি! কিন্তু তুমি তা বুঝবে কেন?তোমাকেও ভালবাসাটা যে আমার অপরাধ ছিল। কেন ছিল? হুম বলবো না কাউকে, তুমি ভেবো না।

ওহ সরি, আবার ঝগড়া করছি? ঠিকাছে আর করবো না। আচ্ছা মানুষ একটা তুমি। তোমার সাথে রাগ করাও যাবে না। তুমি তো বুঝবে না, ঝগড়া দিয়েই কিন্তু ভালবাসা গভীর করে তোলা সম্ভব।

না আমি তোমাকে মোটেও অভিশাপ দিচ্ছি না। কখনও দেইও নি। তুমি ভুলে যাও কেন? আমি কিন্তু ভুলিনি। তোমাকে ভালবেসেছি, অভিশাপ দেয়ার ক্ষমতা আমার নেই। আর কতবার বলবো! আমি তোমাকে ক্ষমা করেছি।

তুমি আমার অভিমানী কথাগুলোর অর্থ যে বুঝবে না, আমি কি জানতাম নাকি! আমি কিন্তু বুঝি নি অত সহজ কথাগুলো তুমি বুঝবে না। দেখ চাঁদটা আজ বেশ বড়। পূর্ণিমা হয়তো। আচ্ছা আজকাল সবই ভুলে যাই আমি। ভুলিনি শুধু সেই স্বপ্নটার কথা। একদিন তুমি আমি কালনী নদীর পাড়ে বসে চাঁদের আলো দেখবো। আলো ছায়ার মাঝে দূরের গ্রামকে সমুদ্রের মত করে আঁকবো। পানির রংটা কিন্তু সবুজ হবে, আমাদের ভালবাসার মত চির যৌবনা। তুমি রাতের ধ্রুবতারার কথা ভুলে যাবে। আমি মনে করিয়ে দিব না। অনেক রেগে আছি আমি।

বলেছিলে আমার ভালবাসার প্রতি তোমার বিশ্বাস আছে, তাও এমন কাজটা করতে পারলে? যাও আর কথাই বলবো না।

দেখ দেখ, আবার রাগ! রাগের একটা পুরো গামলা তুমি। কি! কামলা! না না, আমি তোমাকে কামলা বলিনি, গামলা বলেছি। সব সময় উল্টোটাই বুঝো। কবে যে ঠিকঠাক চিন্তা করবে আমি বুঝি না। তোমার সেই সিদুঁরের কথা মনে আছে? একদিন আমি তাকে মন্দিরে লুকিয়ে রেখে এসেছিলাম। সত্যি বলছি, আমি সেদিন মন্দিরে গিয়েছিলাম। হয়তো তোমাকে ভালবাসার কারনে ঐটুকু সাহস হয়েছিল আমার।

দেখ কি গরম পড়ছে। আচ্ছা বাবা, দেখা যায় না, অনুভব করা যায়। আচ্ছা আমার ভুল ধরাটাই কি তোমার একমাত্র কাজ! দেখ এতো ভুল ধরলে আমি কিন্তু অনেক দূরে চলে যাব। কি! গেলে সমস্যা নেই? কেমন মানুষ তুমি। একেবারেই….। কি করে থাকবো তোমার সাথে?

এবার খুব গুরুত্বপূর্ণ কথাটা জিজ্ঞাসা করি। আচ্ছা তুমি কি আজও ঐ গানটা গাও, “আমার গায়ে যত দুঃখ সয়………”? তুমি যে ঐ গানটি গেয়ে তোমার পুরনো প্রেমিকাকে ভেবে কাঁদতে আমি কিন্তু ঠিক বুঝতাম। তোমার সেই অঝোর ধারায় কান্নার জন্যই তোমাকে আমি ভালবেসেছি। তোমার প্রেমিকাকে আমার খুব হিংসে হতো। তুমি যে তা জানতে সেটা আমিও জানি। তবুও আমাকে রাগিয়ে দেয়ার কাজটা একটা শিল্পের পর্যায়ে নিয়ে গিয়েছিলে তুমি।

হুম জানি। আর বলতে হবে না। ভালবাসার পাবার অধিকার একমাত্র সুন্দরীদের। আমার সেই অধিকার নেই। এতো কঠিন কথাটা আমাকে কি করে বলেলে তুমি! কঠিন না। এটা একটা খারাপ কথা। যে কোন মেয়ে এই কথাতে খুব কষ্ট পাবে। হা আমি জানি ইচ্ছে করেই বলেছো। আমাকে কষ্ট দেবার জন্য।

জানো এখন বৃষ্টি হচ্ছে। ঘুম প্রিয় আমি ঘুম ছেড়ে তোমাকে এই অপ্রয়োজনীয় কথাটা বলতে এলাম। আচ্ছা তাহলে ঘুমিয়ে পড়ি। মাথাটা খুব ধরেছে, একটু পাশে বসো আমার।

অনেকদিন আগে তোমাকে ফোন দিয়ে তোমার কন্ঠ শুনেছিলাম। আমি কথা বলিনি। তুমি জানতে পেরেছিলে ওটা আমি ছিলাম?কি করে বুঝবে আমি তো কথা বলিনি।

না জানলেও সমস্যা নেই। কারন সব কষ্ট ঐদিনই শেষ হয়ে গিয়েছিল যেদিন বুঝতে পেরেছিলাম মৃত্যুর আগে আমার কাছে ক্ষমা চেয়েছিলে। অজান্তেই বলেছিলাম, আল্লাহ ভাল জানেন তোমাকে ক্ষমা করবেন কিনা। তুমি বলেছিলে, “ধন্যবাদ! জানি তুই ক্ষমা করলেও তোর মনটা আমাকে ক্ষমা করবে না।”

আমি আজও জানতে পারিনি তুমি কেন সেদিনই তারা হয়েছিলে। উত্তরটা আজও জানি না। তুমি কি এখনও গান গাও? কি অদ্ভুত! মৃত মানুষ কি কখনও গাইতে পারে? তবে আজও যখন তুমি স্বপ্নে এলে আমার মনে পড়ে গেল সেই দিনগুলো। মনে আছে, সংসদ ভবনের পেছনে সেই পিচ ঢালা পথের কথা। ফুটপাতে আমার কোমল হাতে তুমি অনেক স্বপ্নকে খুঁজতে? সত্যি বলছি তোমার চলে যাবার সেই পথে আর কারো হাত ধরে স্বপ্ন খুঁজিনি…..।

তবে খুঁজবো একদিন। অবশ্যই খুঁজবো। সেদিন কিন্তু তোমার কথা আমার মনেও পড়বে না। অনেক রাগ। অনেক রাগ আমার তোমার প্রতি আমার। আমি জানি তুমি সেদিন আবার কাঁদবে। অনেক রেগে আছি আমি। তাচ্ছিল্যের হাসিটা আর হেসো না তুমি। আমি দেখেছি তুমি হাসলে এইমাত্র। এমন কুটিল হাসিটার জন্যই তোমাকে আজও ভাবি আমি…..।

এটি একটি কাল্পনিক গল্প। এক একতরফা ভালবাসায় সিক্ত কোন প্রেমিকার করুণ কল্পনা, যার মনে আজও তার ক্ষণজন্মা প্রেমিকের অকাল মৃত্যুর যন্ত্রণা। যদিও মেয়েটি জানে উত্তরটা তার আর কোন দিনই পাওয়া হবে না। কল্পনার আড়ালে সত্য এমন অনেক ভালবাসাই বছরের পর বছর বেঁচে আছে।

আচ্ছা সুইসাইড আসলেই কি কোন সমস্যার সমাধান? কখনই না। একটা সুইসাইড পুরো একটি পরিবারের শেষ হয়ে যাওয়া। অনেকগুলো স্বপ্নের মৃত্যু।

ভালবাসার সুন্দর পরিণতি তো সবাই আশা করে। কিন্তু কিছু স্বপ্নকে এভাবেই হারিয়ে যেতে হয়।

 লিখেছেনঃ আনিকা ইসলাম মৌরি