মুক্তধারা

আমার মনে হচ্ছে আমার চেয়ে সুখি মা আর কেও নাই…

সাজুনি বেগম দেখতে খুব সুন্দর ফুটফুটে একটি বাচ্চা। সে ছোট বেলায় সাজতে খুব ভালবাসত তাই তার নানি সাজুনি নাম রেখেছে। ৩ বছর বয়সের মধ্যে ২ ভাই অজানা কারণেই মারা গেল। ৫ বছর না হতেই বাবা মারা গেল বসন্ত  রোগে। বংশের প্রদিপ(ছেলে) নেই বলে সাজুনি ও তার মা কে তার বাবার বাড়ি থেকে সম্পত্তি দূরের কথা থাকার জন্য ঘর ও দিল না। সাজুনির মা রাগে ক্ষোভে  সাজুনি কে নিয়ে গ্রাম ছেড়ে শহরে চলে এল। সাজুনি কে তার মামার কাছে রেখে তার মা চাকুরি নিল। ২ বছর পর সাজুনি তার মায়ের কাছে থাকা শুরু করল। দিন আনা দিন খাওয়া এর মধ্যে পড়া শুনা ভালই চলছিল। ৮ পাস করার পর পড়াশোনা বন্ধ হয়ে গেল। টাকা অল্প ছিল তাই। একলা একলা মা এর সাথে আর কয়েক বছর কেটে গেল। ১৮ বছর বয়সে ইচ্ছা না থাকা সত্ত্বেও খালাত ভাই এর সাথে বিয়ে হল। কারন বাবা ভাই ছাড়া মেয়ে কেই বা বিয়ে করবে! বিয়ের তিন বছর পর ১টা ছেলে সন্তান হল। তার ৩ বছর পর মেয়ে। একজনের আয়ে টানাটানি হত খুব। এই টানা টানির মধ্যেও সে তার বাচ্চা দের পড়াশোনা করায়ে মানুষ বানানোর সপ্ন দেখে। অনেক বছর পর আর ১ টি মেয়ে হল। তার ৩ সন্তানই এখন লেখাপড়া করে চাকুরি করে। সাজুনি আজ খুব ভাল আছে সে নিজেই বলে। সাজুনির জন্ম দিনে তাকে গিফট দিয়ে অবাক করে দেয় তার সন্তানরা। মা দিবসে তাকে তার পছন্দের খাবার খাওয়ায়ে অবাক করে দেয়। শুধু তাই নয়, যেহেতু সাজুনির মা ছাড়া কেও ছিল না, একাকীত্বেই সময় কাটাত তাই সে খুব বেশি ঘুরতে পারে নাই। তাই আজ তার সন্তানরা তাকে অনেক জায়গায় ঘুরতে নিয়ে যায়, বড় বড় মার্কেটে নিয়ে যায়। সে খুব ভাল আছে,  আজ এত কষ্টের পর সে সত্যিই খুব ভাল আছে।

আমরা তাকে ভালবাসি তাই ভাল আছে। হুম আমি সেই সাজুনির ২য় কন্যা সন্তান। মা কে কথা দিয়েছি সারা জীবন ভালবাসব ভাল রাখব। গত বছর ৮ই মে তে আমার মা বলেছেন “আজ আমি খুব খুশি, আমার মনে হচ্ছে আমার চেয়ে সুখি মানুষ আর কেও নাই”। এটাই আমাদের প্রাপ্তি। আমার নানি আমার ২য় মা। কারন সে আমার মা কে সত্যি কারের একজন ভাল মা জন্ম দিয়েছে। নানি আমাদের তার সন্তান দের মতই ভালবাসে। এর পরেও কষ্ট দেই বলে SORRY মা।

লিখেছেনঃ সামিয়া রিমু