অনুরণন

বাবা

বারান্দায় দাড়ালে ঠান্ডা বাতাশ মন ভরিয়ে দেয়। বিকেলটা আমার প্রতিদিন বারান্দায় বসে ই কেটে যায়। কদিন থেকে মনটা বেশ ভাল। একটু ফুরে ফুরে মেজাজ,চা হাতে নিয়ে বসলাম,চা আজ মনে হয় ভাল হয়েছে কড়া লিকারে বানানো। মাঝে মাঝে চা খুব ভাল বানায় লিপি। আজ কাল কোন কিছুতেই মন দিতে পারছিনা। মনটা অতি ভাল থাকলেও যা খারাপ থাকলেও তাই কাজ কর্ম আর তখন ভাল লগেনা । মাঝে মাঝে গান শুনতে ভাল লগতো সেটাও আর ভাল লাগছেনা। গাছে নতুন পাতা গুলো বৃষ্টির পানিতে ধুয়ে চক চক করছে। সবুজ আর সবুজ চারপাশে। এমন সময় মন চায় প্রিয় মানুষ টা পাশে থাক। কতদিন হবে আমাদের পরিচয় ৮ কি ৯ বছর। বন্ধুত্ব খুব যে ভাল ছিল তা না,তবে সৌজন্যতা ছিল। মাঝে মাঝে হালকা দুই একটা কথা এইতো। জীবন তো ভালই চলছিলো। হঠাৎ কোথা থেকে একাকিত্ত এসে ভর করে নিলো আমাকে। চারপাশ তখন শুন্য। সবার সাথে বক বক করছি অকারনে তোমার সাথেও কথার পরিধি বাড়তে শুরু করে। মাঝে মাঝে তুমি বিরক্ত ও হতে আমি বুঝতাম। কথার পিঠে কথা, কত কথা, গোছানো অগোছালো কত রকমের কথা বলা। আমার ভিতরটা তখন কষ্টে নীল, কার কাছে বলবো আমার কথা! কাউকে বলতেপারিনি, শুধু অকারনে কথা। তুমি কি বুঝেছিলে আমার একাকিত্বটাকে! আমরা কথা বলতাম সময় পার হয়ে যেতো। কোথাথেকে কি হয়ে গেলো মন আরো বেশী অস্থির হতে লাগলো, তোমার ছবিটা মাঝে মাঝে দেখি, তোমাকে দেখলে বুকের কোথাও চাপা ব্যথা আর সাথে নিজের অজান্তে বেরিয়ে আসে দীর্ঘস্বাস। কতদিন খুজেছি কারণ কিন্তু বুঝিনি কেনো। যখন বুঝলাম তোমাকে জানালাম। প্রথমে ভেবেছিলাম তোমাকে বলবো তোমার সাথে মজা করেছি কিন্তু তা আর বলা হলো না। সেখান থেকেই শুরু। ভাললাগা টা অনেক গভীর পরে বুঝেছি। একটু অপেক্ষা তেই ধয্যহারা হয়ে যাই বাচ্চাদের মতো। ফোন পেতে দেরি হলে অভিমান করি। ছি এগুলো কি আমার করা উচিত!আচ্ছা তোমার মনের কথা কি কখনো বলেছো , কখনো তো বলোনি তোমার ভাললাগার কথা? আমি সারাটা দিন বক বক করে যাই তুমি শোন। মাঝে মাঝে মনে হয় ভাললাগাটা আমার একার নয় তো? হঠাৎ করেই ভাবনার খেই হারিয়ে ফেলি, টুকুটুকির ডাকে। মেয়ে স্কুল থেকে ফিরেছে। এবার তো ওকে সময় দিতে হবে। জমে থাকা কষ্ট গুলো আর কষ্ট নয় এখন সেগুলো নিজেকে সামনে এগিয়ে নেওয়ার হাতিয়ার হয়ে গেছে। কত স্বপ্ন আমরা দেখেছিলাম একসাথে কিছুই তো পুরন হয়নি
তুমি ছিলে একরোখা, যেদিন শুনেছিলে আমি মা আর তুমি বাবা হবে সেদিন তো কত খুশিই না হয়েছিলে। যখন জানলে তোমার ঘরে রাজকন্যা আসছে তখন তুমি আনন্দে আত্মহারা। তারপর? কোন এক ঝড়ে দুজন দুদিকে চলে গেলাম। তুমি কখনই আর পেছনে ফিরে তাকাও নি, কখনো জানতে চাওনি তোমার সন্তান পৃথিবীতে এসেছে কিনা। কত প্রশ্ন, কত কথা, কত অভিমান আমাকেএকা সামলাতে হয়। বাবা মানুষটা স্বপ্ন ওর কাছে, যা অধরা। তুমি আজ সাড়ে ছয় বছর পর জানালে তুমি আসবে। আমিতো পথ চেয়ে ছিলাম, ভেবনা সে আমার দূর্বলতা। আমি কথা রাখতে জানি, রেখেছি ও। তুমি কি চিনবে তোমার রাজকন্যা কে। সেতো বাবাকে চেনে না, জানেনা বাবা কেমন হয়।তুমি কি পারবে ওর স্বপ্নের
বাবা হতে?

লিখেছেনঃ সাজিয়া আফরিন