হুতুমপেঁচা বলছি

আগে নিজের কথা ভাবুন (পর্ব-১)

 আপুরা যাদের বিয়ে হয়েছে বা হবে তারা অবশ্যই নিজেদের গহনা নিজের কাছে রাখার চেষ্টা করবেন । কখনো তা শাশুড়ি বা ননদ বা নিজের মায়ের কাছে রেখে আসবে না । কারন আমাদের অধিকাংশ মেয়েদের উপার্জন বা সম্পত্তি বলে কিছু থাকে না যা থাকে তা এই বিয়ের সময়ের গহনা , দেনমোহরানাও আমরা সঠিক ভাবে পাই না । তাই নিজের যা আছে তা আগে সামলাতে শিখুন , মিষ্টি কথায় ভুলবেন না। আর যার কাছে রাখবেন তার কাছ থেকে হারায় গেলে বা চুরি হলে কি করবেন ? বরং নিজের কাছে রাখবেন চুরি হলেও আপনার একটি সান্ত্বনা থাকবে । এবং শুধুমাত্র আপনার বিপদে এই গহনা ব্যবহার করবেন ।

যে আপুরা বিয়ের পরে কোন কারনে শ্বশুর বাড়িতে না থেকে নিজের বাড়িতে থাকেন তারা অনেক সময় হীনমন্যতায় ভোগেন কখন কে কি বলবে এই দুশ্চিন্তা সবসময় করেন । তাদের জন্য পরামর্শ – আপনাকে কেও ফোনে বা সামনে এসে জিজ্ঞাসা করলে কোথায় থাকেন?? সরাসরি বলবেন আমি আমার নিজের বাসায় থাকি। আত্মবিশ্বাসের সাথে বলুন আপু দেখবেন অনেক সমস্যার সমাধান এই সামান্য কথা থেকেই হয়ে যাবে।

যারা চাকরি করেন তাদের সব থেকে বেশি সমস্যা রান্না নিয়ে , যদি আপু একা থাকেন হাসবেন্ড আর বাচ্চা নিয়ে তবে সপ্তাহের ১ দিন বাইরে খেতে যান আপনার নিজের ভাল লাগবে । আর চেষ্টা করুন যা রান্না করবেন একটু বেশি রান্না করতে যাতে আপনার শরীর খারাপ হলে বা হঠাত মেহমান এলে ঝামেলা করতে না হয় । আর যারা শ্বশুর বাড়িতে থাকেন – আপুরা জানি রান্না করা অনেক ধর্য্যের ব্যাপার হয়ত অনেকেই চাকরি করে তা পারেন না এবং অনেক সমস্যা হয় তারপরেও চেষ্টা করবেন যেদিন থাকবেন সেদিন বাসায় রান্নাটা করতে শুধুমাত্র মানসিক অত্যাচার কমাতে এই টিপস।

যাদের ডিভোর্স হয়েছে বা সম্পর্ক অবনতির দিকে , আপনারা স্বাবলম্বী হবার কথা আগে ভাবুন কেও কটু কথা বললে ভয় পাবেন না সাহস হারাবেন না । শুধুমাত্র নিজের আর্থিক অবস্থার উন্নতি করুন দেখবেন সমাজ তখন আপনার পায়ের নিচে।

অতীতের সম্পর্ক নিয়ে যাদের বর্তমান সম্পর্ক খারাপ হচ্ছে তাদের উদ্দেশ্যে আপু নিজের কথা ভাবুন সম্পর্ক কে ভাল করতে হলে অতীতের সব থেকে বিচ্ছিন্ন হন । সোশ্যাল মিডিয়া , ফোন , টিটকারি মারা বন্ধু -আত্মীয় সব থেকে সরে আসুন । এরপর নতুন করে জীবন পরিচালনা করুন ।

হুতুমপেঁচা বলছি……